• [english_date] , [bangla_date] , [hijri_date]

দেশে পুত্রবধুর বাড়িতে পিতার হুমকী

Sonaly Sylhet
প্রকাশিত January 11, 2022
দেশে পুত্রবধুর বাড়িতে পিতার হুমকী

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি: যুক্তরাজ্যের লন্ডন সিটিতে স্ত্রীকে সাথে নিয়ে বসবাসকারী বড়লেখা উপজেলার পাঁচপাড়া গ্রামের এবাদুর রহমানের পুত্র সাইদুল মাহমুদ গত ৩০ ডিসেম্বর বিকালে স্ত্রীকে বাসায় রেখে বেরিয়ে যাওয়ার পর থেকে অদ্যাবধি তার আর কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় দেশে থাকা সাইদুল মাহমুদ ও তার স্ত্রী ছায়রা বেগম এর পরিবার এক পক্ষ অপর পক্ষকে পাল্টাপাল্টি দোষারূপ করছে। সাইদুল মাহমুদের পিতা এবাদুর রহমান গত ১০ জানুয়ারী ররিবার দুপুর ১২ টার দিকে তার অনুসারি ৬/৭ ক্যাডারকে সাথে নিয়ে বিয়ানীবাজারস্থ পুত্রবধুর বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারের লোকজনকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করেন। পুত্রের সন্ধান না দিলে চরমমূল্য দিতে হবে বলে প্রকাশ্যে হুমকী-দামকী দিয়েছেন। এ ঘটনায় ছায়রা ও তার পরিবার আতংকিত হয়ে পড়েছেন।
জানা যায়, গত বছর ২০ অক্টোবর পারিবারিক ভাবে বিয়ানীবাজার উপজেলার পূর্ব মুড়িয়া এলাকার আষ্টঘরী গ্রামের মৃত আকদ্দছ আলীর কন্যা ছায়রা বেগমের বিয়ে হয় পার্শ্ববর্তী বড়লেখা উপজেলার পাঁচপাড়া গ্রামের এবাদুর রহমানের পুত্র সাইদুল মাহমুদের সঙ্গে। বিয়ের পর স্ত্রীকে নিয়ে যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমান সাইদুল মাহমুদ। যুক্তরাজ্যের লন্ডন সিটিতে নব দম্পতির সংসার জীবন ভালই চলছিল।
কিন্তু গত ৫ ডিসেম্বর বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা কাওছার আহমদ দলবল নিয়ে ছায়রা বেগমের শশুর বাড়িতে গিয়ে তার শশুর-শাশুড়ি ও পরিবারের সদস্যদের কাছে তাদের পুত্রবধূ ছায়রা বেগম সম্পর্কে নানা অপবাদ দেন। এ সময় কাওছার ও তার সাথে থাকা আওয়ামী লীগের ক্যাডাররা হুমকী দেন সাইদুল মাহমুদ যেন ছায়রা বেগমের সঙ্গ ছাড়েন। অন্যথায় সাইদুল এবং তার পরিবারকে চরম ক্ষতির সম্মুখিন হতে হবে বলে। এই ঘটনার পর থেকে একদিকে দেশে থাকা সাইদুল মাহমুদ ও ছায়রা বেগম এর পরিবারের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়, অন্যদিকে লন্ডনে বসবাসরত সাইদুল ও ছায়রার দাম্পত্য জীবনে অবিশ্বাস ও কলহ্য দেখা দেয়। এ অবস্থায় হঠাৎ করে গত ৩০ ডিসেম্বর বিকাল থেকে উধাও হয়ে যান সাইদুল মাহমুদ। সম্ভাব্য সকল স্থানে খোজ নেওয়ার পরও অদ্যাবধি পর্যন্ত তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। এ অবস্থায় দেশে থাকা সাইদুলের পরিবার ছায়রা বেগমকে পুত্র সন্ধানের জন্য দায়ী করছে, অন্যদিকে ছায়রার পরিবার দাবী করছে আওয়ামীলীগ নেতা কাওছারের মিথ্যে অপবাদ ও তার ক্যাডারদের হুমকীর ভয়ে সাইদুল তাদের মেয়েকে লন্ডনের বাসায় একা ফেলে রেখে স্বেচ্ছায় অন্যত্র চলে গেছে। উভয় পরিবারের পাল্টাপাল্টি দোষারূপের মধ্যে ঘটনার দিন ১০ জানুয়ারী সাইদুলের পিতা এবাদুর রহমান তার অনুসারি ৬/৭ ক্যাডারকে সাথে নিয়ে বিয়ানীবাজারস্থ পুত্রবধুর বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারের লোকজনকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি ও তার পুত্রের সন্ধান না দিলে লন্ডনে ছায়রা বেগম এবং বাড়িতে পরিবারের লোকজনকে চরমমূল্য দিতে হবে বলে প্রকাশ্যে হুমকী-দামকী দিয়েছেন। ছায়রা বেগমের পূর্ব শক্র ও তার স্থানীয় অনুসারি ক্যাডারদের সাথে নিয়ে এবাদুর রহমানের এই ঘটনায় চমর আতংকিত হয়ে পড়েছেন ছায়রার পরিবার। একই সাথে লন্ডনে ছায়রা নিজের জীবনের নিরাপত্তা নিয়েও চরম শংঙ্কায় দিন কাটাচ্ছেন। বিষয়টি স্থানীয় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ও মুখরোচক আলোচনার সৃষ্টি করেছে।

নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত মহান স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস পালন উপলক্ষে নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের উদ্যোগে জেকসন হাইটসে’র একটি রেস্টুরেন্টে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সিলেট এম সি কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শাহিন আজমল এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন সিলেট দক্ষিণ সুরমা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও কানেকটিকাট আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন আহমেদ চৌধুরী, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সিরাজুল ইসলাম ভূঁইয়া। সভা পরিচালনা করেন সাবেক যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগ সহ সভাপতি ও নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মেহরাজ হোসেন ফাহমি। অনুষ্ঠানে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মাহবুবুর রহমান চৌধুরী নাসিফকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক উপকমিটির সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।