দেশের কোনো রাস্তায় এখন আর বাঁশের সাঁকো থাকবে না : পরিকল্পনামন্ত্রী

প্রকাশিত: ৭:২৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২, ২০২০

দেশের কোনো রাস্তায় এখন আর বাঁশের সাঁকো থাকবে না : পরিকল্পনামন্ত্রী

বগুড়ার শিবগঞ্জে আরসিসির গার্ডারে সেতু নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন পরিকল্পনামন্ত্রী।


সোনালী সিলেট ডেস্ক
পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান বলেছেন, দেশের কোনো রাস্তায় এখন আর বাঁশের সাঁকো থাকবে না, এটি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ। এ কারণে দেশের কোথায় বাঁশের সাঁকো আছে বা সেতুর অভাবে মানুষ কষ্ট পাচ্ছে তা খুঁজে বের করে সেখানে সেতু নির্মাণ করা হবে। যে দেশে পদ্মা নদীর ওপর একাধিক সেতু নির্মাণ হচ্ছে, কর্ণফুলী নদীর তলদেশ দিয়ে টানেল নির্মিত হচ্ছে সে দেশে বাঁশের সাঁকো থাকতে পারে না, থাকবে না।

 

বৃহস্পতিবার (২ জানুয়ারি) বিকেলে বগুড়ার শিবগঞ্জে সাড়ে ছয় কোটি টাকা ব্যয়ে ৭২ মিটার দৈর্ঘ্য ও চার মিটার প্রস্থের আরসিসির গার্ডারে সেতু নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে অয়োজিত সমাবেশে এসব কথা বলেন তিনি। শিবগঞ্জ সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন শিবগঞ্জ পৌর মেয়র তৌহিদুর রহমান।

 

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, জনগণের উপকারে আসে এমন প্রকল্প আমার দপ্তরে এলেই অনুমোদন করি। বগুড়ায় একটি বিমানবন্দর স্থাপন এবং করতোয়া নদী খননসহ উন্নয়ন প্রকল্পের বিষয়ে বিশেষ নজর দেয়ার আশ্বাস দেন মন্ত্রী।

 

সমাবেশে বক্তব্য দেন স্থানীয় এমপি শরিফুল ইসলাম জিন্নাহ, বগুড়ার জেলা প্রশাসক (ডিসি) ফয়েজ আহাম্মদ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু, সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, বেসরকারি সংস্থা টিএমএসএসর নির্বাহী পরিচালক হোসনে আরা বেগম, বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. রেজাউল আলম জুয়েল ও শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজার রহমান প্রমুখ।

 

এদিকে সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান উপলক্ষে মানুষের ঢল নামে উপজেলা সদরে। নারী-পুরুষ, বৃদ্ধ-শিশুসহ সব বয়সী মানুষ সকাল থেকে দলে দলে উপজেলা সদরে সমবেত হতে শুরু করে। কোনো বিশেষ উৎসবেও মানুষের এমন ঢল নামে না। কিন্তু একটি সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনে এমন ঢল নামে মানুষের, যা দেখে বিস্মিত হন খোদ পরিকল্পনামন্ত্রী।

 

এজন্য সমাবেশ মঞ্চে উঠেই মন্ত্রী বলেন, এত নারী-পুরুষসহ সব বয়সীরা আজ এখানে ছুটে এসেছেন মন্ত্রীকে দেখতে কিংবা তার বক্তব্য শুনতে নয়। মূলত তাদের দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা যে পূরণ হতে চলেছে বিষয়টি দেখার জন্যই এত মানুষ এখানে ছুটে এসেছেন। আমি তাদের শুভেচ্ছা জানাই।

 

বহুল কাঙ্ক্ষিত সেই সেতুটি বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার অর্জুনপুরে করতোয়া নদীর ওপরে নির্মিত হচ্ছে। আশপাশের ২০ গ্রামের লক্ষাধিক মানুষ সেতুটি নির্মাণের জন্য দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসছিল।

 

কারণ শিবগঞ্জ উপজেলা সদর থেকে মাত্র দেড় কিলোমিটার দূরে পৌর এলাকার অর্জুনপুর মহল্লা। সেই মহল্লার বাসিন্দাদের বিভিন্ন কাজে উপজেলা সদরে আসতে চার কিলোমিটার সড়ক ঘুরতে হয়। এজন্য স্বাধীনতার পর থেকে রাঙামাটিয়া ও অর্জুনপুরকে বিভক্ত করা করতোয়া নদীর ওপর একটি সেতু নির্মাণের দাবি জানিয়ে আসছিল তারা।

 

সেই সময় থেকে অনেক জনপ্রতিনিধি সেতু নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দেন। কিন্তু কেউই প্রতিশ্রুতি রাখেননি। দীর্ঘদিনের স্বপ্নের সেতু নির্মাণ হচ্ছে জেনে উৎসবে মেতে ওঠে অর্জুনপুর, ছয়ঘড়িয়া পাড়া, গরিবপুর, আকন্দপাড়া, ধোন্দাকোলা, সন্ন্যাসী ধোন্দাকোলা, দেবীপুর, খালিসপুর, অনন্তপুর, উথলী, রথবাড়ি, নারায়ণপুর, ছোট নারায়ণপুর ও বাগমারাসহ ২০ গ্রামের মানুষ।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম