ঢাকার দুই সিটির নির্বাচনে ৩৫ হাজার ইভিএম প্রস্তুত

প্রকাশিত: ৯:০০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৯, ২০১৯

ঢাকার দুই সিটির নির্বাচনে ৩৫ হাজার ইভিএম প্রস্তুত

সোনালী সিলেট ডেস্ক
ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন-ইভিএমের মাধ্যমে ঢাকার দুই সিটির নির্বাচন অনুষ্ঠানে নির্বাচন কমিশন সম্পূর্ণ প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাইদুল ইসলাম। এজন্য ৩৫ হাজার ইভিএম প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়া ভোট পুনঃগণনার জন্য ইভিএমের লগবুক সংরক্ষণের কথাও জানান তিনি।

 

রবিবার (২৯ ডিসেম্বর) দুপুরে নির্বাচন ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান সাইদুল ইসলাম। ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ব্যবহৃত ইভিএমের প্রস্তুতি জানাতে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগ। সংবাদ সম্মেলনে অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাইদুল ইসলাম জানান, ইভিএমে ভোট গ্রহণে কোন অনৈতিক কর্মকাণ্ড সম্ভব নয়।

 

এ সময় ইভিএম নিয়ে প্রস্তুতির কথাও জানান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাইদুল ইসলাম। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ভোট পুনঃগণনার সুযোগ আছে ইভিএমে, সংরক্ষণ করা হবে লগবুক।

 

এদিকে, নির্বাচনে সব কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবস্থাপনায় সশস্ত্র বাহিনীর ৫ হাজার ২৮০ জন সদস্য মোতায়েন থাকবেন বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী। রোববার (২৯ ডিসেম্বর) দুপুরে নির্বাচন ভবনের নিজ দফতরে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

 

তিনি বলেন, দুই সিটির ভোটের জন্য প্রয়োজনীয় ইভিএম ছাড়াও ৫০ শতাংশ বেশি ইভিএম প্রস্তুত থাকবে। ইভিএমে ভোটের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা থাকবে, স্বচ্ছতায় কোনো সমস্যা নেই। আমাদের সকল প্রকার প্রস্তুতি নেয়া আছে। যাতে করে প্রার্থীরা সন্তুষ্ট থাকতে পারেন, সে ব্যাপারে আমাদের পদক্ষেপ থাকবে। রাজনৈতিক দলের মধ্যে ইভিএম নিয়ে বিতর্ক থাকলে পরীক্ষামূলক ভোটে সার্বিক ব্যবস্থা দেখতে দলগুলোকে আমন্ত্রণ জানানো হবে বলেও জানান তিনি।

 

শাহাদাত হোসেন চৌধুরী বলেন, ইভিএমে প্রতি কেন্দ্রের টেকনিক্যাল সাপোর্টের জন্য দু’জন করে সেনা সদস্য থাকবে। কোনো সমস্যা দেখা দিলে তাৎক্ষণিক ভোট বন্ধ করে দেয়া হবে। ইভিএমে ভোটে অস্বচ্ছতার কিছু নাই।

 

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে ৮টি ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের জন্য ১১টি স্পটে ইভিএম সংরক্ষণের জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছে নির্বাচন কমিশন থেকে।

 

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে সাধারণ ওয়ার্ড সংখ্যা ৫৪টি, সংরক্ষিত ওয়ার্ড সংখ্যা ১৮টি, মোট ভোটার সংখ্যা ৩০ লাখ ৩৫ হাজার ৬২১ জন। আর সম্ভাব্য ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ১ হাজার ৩৪৯টি, সম্ভাব্য ভোটকক্ষের সংখ্যা ৭ হাজার ৫১৬টি।

 

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে ৭৫টি সাধারণ ওয়ার্ড ও ২৫টি সংরক্ষিত ওয়ার্ড রয়েছে। এ নির্বাচনে ১ হাজার ১২৪টি ভোটকেন্দ্রের ৫ হাজার ৯৯৮টি ভোটকক্ষে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। মোট ২৩ লাখ ৬৭ হাজার ৪৮৮ ভোটার এ নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাবেন।

আগামী ৩০ জানুয়ারি ঢাকার দুই সিটির ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম