দক্ষিণ সুরমা আ.লীগের নেতৃত্বে সাইফুল-শামিম

প্রকাশিত: ৯:১২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০১৯

দক্ষিণ সুরমা আ.লীগের নেতৃত্বে সাইফুল-শামিম

নিজস্ব প্রতিবেদন
অবশেষে কাউন্সিলরদের ভোটে গঠিত হলো সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলা আওয়ামী লীগের নতুন কমিটি। কমিটিতে সভাপতি হিসেবে সাবেক সভাপতি সাইফুল আলম পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন এডভোকেট শামিম আহমদ। দুই পদে মিলে প্রায় একডজন প্রার্থী থেকে কাউন্সিলরদের ভোটে তারা দুইজন নির্বাচিত হন।

এর আগে সোমবার (২৫ নভেম্বর) দুপুরে কুচাই ইসরাব আলী স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত হয় ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। সম্মেলন ঘিরে সকাল থেকেই বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল এসে জড়ো হতে থাকে সম্মেলনস্থলে।

সম্মেলনে উদ্বোধন করেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট লুৎফুর রহমান। প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ও সিলেট মহানগর সভাপতি, সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।

প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নিজাম উদ্দিন, প্রচার সম্পাদক এডভোকেট মাহফুজুর রহমান, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক হাজী ফারুক আহমদ, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক মো. কবির উদ্দিন আহমদ, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এডভোকেট মোহাম্মদ বদরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, মইনুল ইসলাম, শহীদুর রহমান শাহীন ও দক্ষিণ সুরমা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আবু জাহিদ প্রমুখ।

সম্মেলনের পর সন্ধ্যায় শুরু হয় কাউন্সিল। প্ রথমে সমঝোতার মাধ্যমে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচনের প্রস্তাব রাখা হলেও পরে তৃণমূল আওয়ামী লীগের ইচ্ছাতেই গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় ভোটের মাধ্যমে কমিটি গঠন করা হয়।

এর আগে ওসমানীনগর, বালাগঞ্জ, ফেঞ্চুগঞ্জ, গোয়াইনঘাট, কোম্পানীগঞ্জ, কানাইঘাট ও জকিগঞ্জসহ মোট ৭ টি উপজেলায় কেন্দ্রের হস্তক্ষেপে সমঝোতার মাধ্যমে কমিটি গঠন করা হলেও এখনো আটকে আছে গোলাপগঞ্জ উপজেলা কমিটি। আর দক্ষিণ সুরমা ও বিয়ানীবাজার এ দুই উপজেলায় গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় ভোটের মাধ্যমেই কমিটি গঠন করা হয়।

এদিকে দীর্ঘ ১৫ বছর পর সম্মেলন ঘিরে দক্ষিণ সুরমা উপজেলা আওয়ামী লীগের মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছিলো। সম্মেলনের তারিখ ঘোষণার পর থেকেই প্রচার প্রচারণা আর ব্যানার ফেস্টুনে সেজেছিলো উপজেলার সর্বত্র। বিশেষ করে সম্মেলনস্থল ইসরাব আলী সুকুল এন্ড কলেজের পার্শ সড়ক সিলেট-গোলাপগঞ্জ সড়কের দুই পাশে সাঁটানো হয়েছিলো অসংখ্য ব্যানার ফেস্টুন। সব মিলিয়ে নেতাকর্মীদের ব্যাপক আগ্রহ আর আকাঙ্ক্ষা ছিলো সম্মেলন ঘিরে। তাই শেষমেশ কাঙ্ক্ষিত গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া ভোটের মাধ্যমেই তৃণমূলের কর্মীরা তাদের নেতা নির্বাচন করলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম