দোয়ারাবাজারে আ. লীগের ২ পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৫, পরিস্থিত নিয়ন্ত্রণে

প্রকাশিত: ৮:৫৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২১, ২০১৯

দোয়ারাবাজারে আ. লীগের ২ পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৫, পরিস্থিত নিয়ন্ত্রণে

দোয়ারাবাজার সংবাদদাতা
সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুহিবুর রহমান মানিককে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে মিছিল করতে গিয়ে দলীয় দুই পক্ষের সংঘর্ষে ১৫ জন আহত হয়েছেন। বুধবার (২০ নভেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলার বাংলাবাজারে এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহত সিলেট নগর ছাত্রলীগ নেতা শাহজালাল, সাবেক ইউপি সদস্য নজরুল ভূঁইয়া, আলতু মিয়া, ফালান মেম্বার, জসিম উদ্দিন, মনাফ মিয়া ও আব্দুল হককে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও দোয়ারাবাজার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। অন্য আহতদের নাম জানা যায়নি।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সুনামগঞ্জ-৫ (ছাতক-দোয়ারাবাজার) আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুহিবুর রহমান মানিক এবং জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নূরুল হুদা মুকুটের মধ্যে সম্প্রতি উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কমিটি গঠনসহ রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ পত্র-পত্রিকায় পরস্পর বিরোধী বিবৃতি ও মিছিল-মিটিং অব্যাহত রয়েছে। বর্তমানে বহুল আলোচিত এ বিষয়টি ‘টক অব সুনামগঞ্জ’ হওয়ায় সমগ্র জেলাজুড়ে মুখরোচক হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ নিয়ে অতিসম্প্রতি ছাতক-দোয়ারাবাজার ও জেলা সদরে উভয়পক্ষের নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে।

উল্লেখ্য, সুনামগঞ্জ আওয়ামী লীগের শীর্ষ দুই নেতা প্রয়াত ‘সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত ও আব্দুস সামাদ আজাদ’-এর জীবদ্দশায় জেলাজুড়েই দলটি দুই ভাগে বিভক্ত ছিল। জেলাজুড়ে দলীয় কর্মসূচিও পৃথকভাবে পরিচালিত হচ্ছিল। দলের আভ্যন্তরীণ এ কোন্দল নিরসনে কেন্দ্রীয় পর্যায়ে একাধিকবার নির্দেশনা প্রদান করা হলেও কোনো ফলপ্রসূ হয়নি।

বর্তমান প্রজন্মের নেতাকর্মীরাও নিজ নিজ বলয়ের অস্থিত্বের লড়াইয়ে টিকে থাকতে কঠোর হস্তে দলীয় হাল আঁকড়ে ধরে আদাজল খেয়ে মাঠে নেমেছেন। তাই পরস্পরবিরোধী মন্তব্য, কটূক্তি, প্রতিবাদ, মিছিল-মিটিং এ সব কাদা ছোড়াছুড়িতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কথিত আওয়ামী লীগের উভয় গ্রুপের নেতাকর্মীসহ তাদের সমর্থনকারীরা।

এরই জের ধরে বুধবার সন্ধ্যায় স্থানীয় সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিককে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে তার সমর্থিত আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা উপজেলার বাংলাবাজারে মিছিল করতে যান। এ সময় নূরুল হুদা মুকুটের অনুসারী জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক শামীম আহমদ চৌধুরীর সমর্থিত স্থানীয় নেতাকর্মীরা মিছিলে বাধা দেন। এতে উভয়পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ১৫ জন আহত হন।

খবর পেয়ে দোয়ারাবাজার থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। রাতে ছাতক জোনের এএসপি (সার্কেল) বিল্লাল আহমদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ ব্যাপারে দোয়ারাবাজার থানার ওসি আবুল হাশেম ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এখন পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। দাঙ্গা এড়াতে আমরা তৎপর রয়েছি।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম