বড়লেখায় তিন তরুণের ‘মানবতার তরে’

প্রকাশিত: ৬:০০ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২৮, ২০১৮

বড়লেখায় তিন তরুণের ‘মানবতার তরে’

সোনালী সিলেট ডেস্ক রিপোর্ট ::: শীতে দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের পাশে দাঁড়াতে মৌলভীবাজারের বড়লেখায় ব্যতিক্রমী এক উদ্যোগ নিয়েছেন স্থানীয় তিন তরুণ। বড়লেখা পৌর শহরের পাখিয়ালা চৌমুহনীতে চালু করা হয়েছে ‘মানবতার তরে…’ নামে একটি দেয়াল। যে দেয়ালের একপাশে বিত্তবানেরা তাঁদের অপ্রয়োজনীয় কাপড় রেখে যেতে পারবেন, অন্য পাশ থেকে প্রয়োজনীয় কাপড় নিয়ে যেতে পারবেন দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিতরা।

গত সোমবার (২৬ নভেম্বর) রাতে আনুষ্ঠানিকভাবে এই দেয়াল চালু করেন বড়লেখা পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি তাজ উদ্দিন। তরুণ শিক্ষক তারেক আহমদ, বিদ্যুৎ কর্মী মাইনুল ইসলাম ও শিক্ষার্থী সাব্বির আহমদ এ উদ্যোগ নিয়েছেন।

তাঁদের এ উদ্যোগে সহযোগিতা করছেন উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন, স্থানীয় ব্যবসায়ি ওলি আহমদ, আসাদ আহমদ প্রমুখ। উদ্বোধনের পর থেকে এখানে জমা হয়েছে অন্তত ২০০ কাপড়। বিতরণ করা হয়েছে প্রায় শতাধিক।

তিন তরুণের একজন শিক্ষক তারেক আহমদ বলেন, ‘অনেক গরীব মানুষ আছেন। রিকশার চালক আছেন। শীতে কষ্ট করছেন কিন্তু কাপড় কিনতে পারছেন না। দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষের কথা চিন্তা করে আমরা এ উদ্যোগ নেই। আমাদের এলাকার বেশিরভাগ মানুষ ধনী। তাদের কাপড় নষ্ট হলেও দেখা যায় ভালো থাকে। এগুলো তাঁরা ফেলে দেন। দেওয়ার মত মানুষ থাকে না। মধ্যবিত্তরাও নেন না। তাই আমরা বিত্তবানদের ফেলে দেওয়া ওই কাপড়গুলো সংগ্রহের উদ্যোগ নিয়েছে। শুরুতেই আমরা ভালো সাড়া পেয়েছি। এ পর্যন্ত দুইশত কাপড় জমা হয়েছে। শতাধিক কাপড় দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিতরা নিয়ে গেছেন।’

পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি তাজ উদ্দিন বলেন, ‘তাঁরা একটি মহৎ উদ্যোগ নিয়েছে। এটা অনেক মানুষকে নিঃসন্দেহে উদ্বুদ্ধ করবে। অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াতে বিত্তবানদেরও এগিয়ে আসা খুব জরুরী। আমাদের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে। বড়লেখায় আরো কয়েকটি স্থানে এরকম দেয়াল করার উদ্যোগ নেব আমরা। সকলকে নিজেদের অবস্থান থেকে সাধ্যমতো এগিয়ে আসার আহবান জানাই।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ সুহেল মাহমুদ বলেন, ‘তরুণদের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানাই। শীতে অনেক দরিদ্র মানুষ শীতবস্ত্র কিনতে পারেন না। সুবিধাবঞ্চিত শিশুসহ নারী-পুরুষেরা কষ্ট পান। তাদের এ দুর্ভোগ লাগবে এ উদ্যোগ প্রশংসনীয়। আমি তাদেরকে ধন্যবান জানাই। এছাড়া বিত্তবানদেরও এই ‘মানবতার তরে…’ নামক দেয়ালে শীতবস্ত্র দিয়ে সহায়তার আহবান জানাই। তাহলে আসন্ন শীতে গরিব লোকজনকে ততটা কষ্টে পড়তে হবে না। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও সুবিধাবঞ্চিত মানুষকে সহযোগিতা করা হবে।’

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম