নগরীর বিপণী বিতানগুলো বর্ণিল সাজে সেজেছে

প্রকাশিত: ৮:৫৫ পূর্বাহ্ণ, মে ২৩, ২০১৯

নগরীর বিপণী বিতানগুলো বর্ণিল সাজে সেজেছে

সোনালী সিলেট ডেস্ক ::: ঈদের মৌসুমে ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে বর্ণিল সাজে সেজেছে নগরীর বিপণি বিতান ও শপিংমলগুলো। সব ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, বিপণিবিতান শপিংমলে লেগেছে নতুনত্বের ছোঁয়া। মূলত ক্রেতাদের আকর্ষণ করতে নানা রঙের আলোকসজ্জায় সেজেছে নগরীর বিপণি বিতানগুলো। শুধু অভিজাত মার্কেট-শপিং মল নয়, মধ্যবিত্ত-নিম্ন মধ্যবিত্তদের বিপণী বিতান-দোকানপাটগুলোও ঝলমলে করছে বাহারি আলোতে। এছাড়াও অনেক শপিংমলের প্রবেশপথকেও করা হয়েছে দৃষ্টিনন্দন। অভিজাত শপিংমলগুলোতে লাগানো হয়েছে নানান রকমের তোরণ।

অলিতে-গলিতে থাকা শো-রুমেও ক্রেতা সাধারণকে আকৃষ্ট করতে আলোকসজ্জ্বা করা হয়েছে। নগরীর বন্দরবাজার, জিন্দাবাজার, নয়াসড়ক, কুমারপাড়া, বারুতখানা, জল্লারপাড়, আম্বরখানা, দরগাগেইট ও কদমতলী এলাকার বিভিন্ন মার্কেট ও ফ্যাশন হাউসে গিয়ে দেখা গেছে, বিপণী বিতান, ফ্যাশন হাউসগুলো ভাসছে আলোকের ঝরণাধারায়। জিন্দাবাজারের সিলেট প্লাজা, সিটি সেন্টার, ব্লু-ওয়াটার শপিং সিটি, সিটি সেন্টার, আলহামরা, নয়াসড়ক ও কুমারপাড়ায় অবস্থিত প্রায় সবক’টি ফ্যাশন হাউসে দৃষ্টিনন্দন তোড়ন আর বাহারি আলোকসজ্জ্বার মাধ্যমে সাজানো হয়েছে। কুমারপাড়ার মূল সড়কের প্রায় পুরো অংশজুড়েই বাহারি আলোকসজ্জা চোখে পড়ার মতো।

ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, বিপনী বিতানগুলোতে আলোকসজ্জা না করা গেলে গ্রাহক আকর্ষণ অনেকটা কমে যায়। আর বছরে একবারই পাওয়া যায় এরকম ব্যবসার সুযোগ, তাই ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে এমন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

এদিকে রমজানের ১৬ দিন চলে গেলেও সিলেটে ঈদের বাজার এখনও জমে ওঠেনি। তবে অনেক ক্রেতা এখন ফাঁকা মার্কেটে এসে নিজের জন্য ও স্বজনদের জন্য ঈদের সামগ্রী পছন্দ করে দরদাম জেনে যাচ্ছেন। আবার অনেকে মার্কেটে মার্কেটে ঘুরে নতুন কালেকশান খুঁজে সময় পার করছেন। এরই মধ্যে কেউ কেউ টুকটাক কিনেও নিচ্ছেন। সব মিলিয়ে এবারের ঈদের বাজার শেষদিকে জমে উঠবে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরা।

এদিকে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের কেনাকাটাকে সামনে রেখে ছিনতাই, চুরি ও যৌন হয়রানিসহ সব ধরনের অপরাধ নিয়ন্ত্রণে বড় বড় মার্কেট ও গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। অনেক মার্কেটে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায়ও নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। পাশাপাশি নগরীতে জোরদার করা হয়েছে পুলিশি টহল।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম