কুমিল্লা থেকে চুরি হওয়া রড বোঝাই ট্রাক দক্ষিণ সুরমা থেকে উদ্ধার

প্রকাশিত: ১০:২১ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০১৮

কুমিল্লা থেকে চুরি হওয়া রড বোঝাই ট্রাক দক্ষিণ সুরমা থেকে উদ্ধার

জাবেদ এমরান
কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট এলাকা থেকে চুরি যাওয়া রডবোঝাই একটি ট্রাক সিলেটের দক্ষিণ সুরমা থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। আবুল খায়ের ষ্টিল মিলস্ কোম্পানির প্রায় ১২ লাখ টাকার ১৮ টন রডসহ ট্রাক চুরির ঘটনায় দক্ষিণ থানার সাব-ইন্সপেক্টর শিপুল চৌধুরী বাদি হয়ে মামলা করেন। আসামীরা হলেন, শাহপরান থানার উপশহর সি ব্লকের ৬১নং বাসার মা ভিলার আসিফ (৩৭), দক্ষিণ সুরমা থানার পিরোজপুরের বাসিন্দা, খাজা ডিজেল ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কশপের ইঞ্জিনিয়ার শামীম (৩০) ও একই থানার বলদির সোনাফর আলীর ছেলে জামাত নেতা বাদল হোসেন (৩৪) সহ অজ্ঞাত আরো কয়েকজন। মামলার এজাহারে বাদি এসআই শিপুল চৌধুরী উল্লেখ করেণ, চলতি মাসের ১২ নভেম্বর ১১ লক্ষ ৮৮ হাজার টাকার ১৮ টন রডবোঝাই একটি ট্রাক চট্রগ্রাম থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। চালক রাশেদ ট্রাক নিয়ে কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় পৌছলে ট্রাকে যান্ত্রিকত্রুটি দেখা দেয়ায় ঢাকা আশুলিয়ার নরসিংপুরের কুদ্দুস এন্ড সন্সে রড নিয়ে যেতে পারেন নি। গাড়ি মেরামতের জন্য আসামি ম্যাকানিক শামীম রডবোঝাই ট্রাক কাজ দেয়া হয়। শামীমকে কাজে রেখে ট্রাক চালক অন্যত্র চলে যান। পরবর্তীতে রাশেদ ফিরে এসে দেখেন ওই স্থানে ট্রাক (ঢাকা মেট্রো ট-১৬-২২৪৩) নেই। তিনি নিশ্চিত হন ম্যাকানিক শামীম ও আসিফ মালামালসহ ট্রাক নিয়ে পালিয়ে যায়। চালক ঘটনাটি তাৎক্ষণিক মালিক লিটনসহ অন্যান্যদের জানান। লিটন অনেক স্থানে খোঁজাখোঁজির পর জানতে পারেন ট্রাকটি সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় রয়েছে। চালককে সাথে নিয়ে ১৫ নভেম্বর চট্রগ্রামের কদমতলীর থানার পোড়া মসজিদ, ডিটি রোড এলাকার মৃত আবুল খায়েরের পুত্র হাসানুর রশীদ লিটন দক্ষিণ সুরমা থানায় এসে পুলিশকে ট্রাকসহ মালামাল চুরির ঘটনাটি জানান। ট্রাক ও চুরের সন্ধানে মাঠে নামে পুলিশের একাদিক টিম। কাজ করে পুলিশের বিভিন্ন সোর্স। নিশ্চিত হয়ে ১৬ নভেম্বর ভোরে এসআই শিপুল চৌধুরীর নেতৃত্বে পুলিশ বঙ্গবীর রোডের লাউয়াই মেসার্স হাজী ওয়াজেদ আলী ফিলিং স্টেশন সংলগ্ন আসামী বাদল হোসেনের মালিকানাধীন মার্কেটের সামন থেকে খালি ট্রাক উদ্ধার করে। পরে ওই মার্কেটে তল্লাশি করে বাবলু মোটরসাইকেল সার্ভিসিং নামক দোকান থেকে চুরিকৃত রড উদ্ধার করা হয়। এজাহারে পুলিশ আরো জানায়, উদ্ধার হওয়া রডের মালিক জামাত নেতা বাদল হোসেন। তিনি রড ক্রয় করেছেন দাবি করলেও কোনো কাগজপত্র দেখাতে না পারায় দু’দিন অপেক্ষার পর রবিবার দক্ষিণ সুরমা থানার এসআই শিপুল চৌধুরী বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেণ। মামলার তদন্তের জন্য দায়িত্ব দেয়া হয় সাব-ইন্সপেক্টর যতন চন্দ্র পালকে। এব্যাপারে মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা যতন চন্দ্র পাল এ প্রতিবেদককে বলেন, আসামীরা পলাতক রয়েছে। তাদের আটক করতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। দক্ষিণ সুরমা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খাইরুল ফজল জানান, রডসহ ট্রাক থানায় রাখা হয়েছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে জব্দকৃত গাড়িসহ মালামাল মালিক কে দেয়া হবে। চুরির সাথে জড়িত সকল আসামীদের আটকের জন্য পুলিশ তৎপর রয়েছে।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম