সিলেটের ছেলে আবু জায়েদ চৌধুরী রাহীকে রাহীকে নিয়ে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল

প্রকাশিত: ৯:৪৮ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১৬, ২০১৯

সিলেটের ছেলে আবু জায়েদ চৌধুরী রাহীকে রাহীকে নিয়ে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল

সোনালী সিলেট ডেস্ক ::: সিলেটের ছেলে আবু জায়েদ চৌধুরী রাহীকে নিয়ে ঘোষিত হলো ২০১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দল। বেশ বড়সড় চমক দিয়ে বিশ্বকাপে জায়গা করে নিয়েছেন এ পেসার।

দলে জায়গা হয়নি পেসার তাসকিন আহমেদেরও। ইনজুরি থেকে ফিরে আসলেও ছন্দ ফিরে না পাওয়ায় স্বপ্নভঙ্গ হয় তার। জায়গা হয়নি আলোচনায় থাকা ইয়াসির আলী রাব্বিরও। তবে টিকে গেছেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে দারুণ বোলিং করেছিলেন রাহী। সে কারণেই শফিউল ইসলামকে টপকে বিশ্বকাপের দলে জায়গা করে নেন এ পেসার। এছাড়া অনভিজ্ঞতার কারণে দারুণ ছন্দে থাকলেও ইয়াসির আলীর জায়গা হয়নি। তার জায়গায় মোসাদ্দেকের উপরই আস্থা রেখেছেন নির্বাচকরা।

অনুমিতভাবেই রয়েছেন সেরা পাঁচ তারকা। এ নিয়ে তৃতীয় বিশ্বকাপে খেলছেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম। তবে সাকিব, তামিম ও মুশফিক খেলছেন টানা তৃতীয় বিশ্বকাপ। দুর্ভাগ্যক্রমে ঘরের মাঠে ২০১১ বিশ্বকাপে জায়গা হয়নি মাশরাফির। ২০০৩ বিশ্বকাপে খেলা একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে তিনি খেলবেন এ বিশ্বকাপ।

২০১৫ বিশ্বকাপ দলের আটজন খেলোয়াড় রয়েছেন বর্তমান দলে। বাদ পড়েছেন তাসকিন, শফিউল ইসলাম, নাসির হোসেন, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক, আরাফাত সানি ও তাইজুল ইসলাম। আর সবশেষ নিউজিল্যান্ডে খেলা সিরিজ থেকে বাদ পড়েছেন নাঈম হাসান, শফিউল ইসলাম।

এছাড়া আগামী ৩ মে থেকে আয়ারল্যান্ড সফরের দলে ঘোষিত ১৫ সদস্যের সঙ্গে যোগ হয়েছেন আরও দুই খেলোয়াড়। অফ স্পিনার নাঈম হাসান ও ইয়াসির আলীকে সুযোগ দেওয়া হয়েছে সে দলে।

সবশেষ বিপিএলে দুর্দান্ত বোলিং করেছিলেন তাসকিন। ১২ ম্যাচে ১৪.৪৫ গড়ে পেয়েছিলেন ২২টি উইকেট। আসরের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারিও ছিলেন তিনি। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে শেষ ম্যাচে চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে ফিল্ডিং করার সময় সীমানা দড়ির ওপর বাঁ পা পড়তেই চোট পান গোড়ালিতে। এরপর ইনজুরি কাটিয়ে গত মাস থেকেই পুনর্বাসন শুরু করেছিলেন। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে দুটি ম্যাচেও খেলেছিলেন। কিন্তু পুরনো ছন্দ খুঁজে পাননি।

তবে ঘোষিত দলে জায়গা না পেলেই যে বিশ্বকাপে খেলার স্বপ্ন শেষ হয় যাচ্ছে তা কিন্তু নয়। আগামী ২৩ মে পর্যন্ত যে কোন সময় দল পরিবর্তন হতে পারে বলেই আগের দিন বলেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন, ‘মে’র ২৩ তারিখ পর্যন্ত সময় আছে। এর মধ্যে যদি কারো ইনজুরি থাকে, কেউ যদি ভালো পারফর্ম করে, তার আসার একটা সুযোগ আছে। বা এখানে ভালো খেলছে না, কিন্তু ত্রিদেশীয় সিরিজে ভালো খেলছে, তাহলে ওদেরকে আমরা নতুন ভাবে সুযোগ দিয়ে দেখতে পারি। আমাদের একটা সুযোগ আছে, বিকল্প আছে এটা পরিবর্তন করার।’

আগামী ৩০ মে থেকে ইংল্যান্ডে উঠছে বিশ্বকাপের পর্দা। অবশ্য বাংলাদেশ তাদের প্রথম ম্যাচ খেলবে ২ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে।

বিশ্বকাপের বাংলাদেশ দল: মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল খান, লিটন কুমার দাস, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ মিঠুন, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মুশফিকুর রহিম, মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, সাব্বির রহমান, আবু জায়েদ চৌধুরী রাহী, সৌম্য সরকার ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

আয়ারল্যান্ড সফরের জন্য বাংলাদেশ দল: মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, লিটন কুমার দাস, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ মিঠুন, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মুশফিকুর রহিম, মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, সাব্বির রহমান, শফিউল ইসলাম, সৌম্য সরকার, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, ইয়াসির আলী চৌধুরী রাব্বি ও নাঈম হাসান।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •