বিয়ানীবাজারে স্কুল ছাত্র অপহরণের ঘটনায় গ্রেপ্তার ৩

প্রকাশিত: ৯:৪০ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১২, ২০১৯

বিয়ানীবাজারে স্কুল ছাত্র অপহরণের ঘটনায় গ্রেপ্তার ৩

সিলেটের বিয়ানীবাজার পৌরশহর থেকে অপহৃত স্কুলছাত্রকে উদ্ধারের পর পুলিশ ৩ অপহরণকারীকে গ্রেপ্তার করেছে। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) দুপুরে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করে পুলিশ।

এদিকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অপহরণের এ ঘটনায় আরও কয়েকজন সম্পৃক্ত রয়েছে বলেও পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। অপহরণকারীদের আস্তানা ছিল নাগেশ্বর এলাকার পল্লব মিয়ার বাড়ি।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো, পৌরসভার নিদনপুর এলাকার ফখরুল ইসলামের পুত্র রেদওয়ান আহমদ (১৯), শেওলা ইউনিয়নের কাকরদিয়া এলাকার ফখরুল ইসলামের পুত্র আব্দুস শহিদ (২০) এবং জকিগঞ্জ উপজেলার লামারগ্রাম এলাকার আব্দুর রউফের পুত্র রমজান আলী (২৮)।

পুলিশ জানায়, অপহৃত স্কুল ছাত্র আখতারুজ্জামান রিয়াদকে অপহরণ করে গ্রেফতারকৃত ৩ জনের সাথে আরও ২জন ছিল। গাড়িতে করে তাকে রমজানের ভাড়া বাসায় নিয়ে রাখে। পরে গাছ দেখানোর কথা বলে নাগেশ্বর এলাকার একটি নির্জন টিলায় নিয়ে গিয়ে রশি দিয়ে হাত-পা ও মুখ কাপড় দিয়ে গাছের সাথে বেঁধে রাখে। এসময় সে চিৎকার করতে চাইলে ধারালো অস্ত্র দিয়ে ভয় দেখায় অপহরণকারীরা।

সোমবার সকালে পরিবারের সদস্যদের মোবাইল ফোনে ০৯৬৩৮ কোডের একটি নম্বর থেকে কল করে ৪০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। দ্রুত সময়ের মধ্যে টাকা না দিলে তাকে খুন করার হুমকি দেয় অপহরণকারীরা। বিষয়টি পরিবারের সদস্যরা বিয়ানীবাজার থানা পুলিশকে অবহিত করলে পুলিশ মোবাইলে আসা কল নম্বরের সূত্র ধরে অপহরণকারীর আস্তানার খোঁজ পায়।

উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে এসএসসি পরীক্ষার্থী রিয়াদকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। রিয়াদ পৌরসভার দাসগ্রাম এলাকার প্রয়াত শিক্ষক রুহুল আমিন মাস্টারের পুত্র।

এ ব্যাপারে বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অবনী শংকর কর জানান, এ ঘটনায় রিয়াদের বড় ভাই আহসান উজ জামান বিয়ানীবাজার থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা (০৯)১১-০৩-১৯) দায়ের করেন। ঘটনার সাথে জড়িত বাকি আসামীদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম