সিলেটে ট্রাফিক বিভাগে কর্মরত টিএসআই কাইয়ুম চাঁদাবাজিতে লিপ্ত

প্রকাশিত: ১২:০৬ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৯

সিলেটে ট্রাফিক বিভাগে কর্মরত টিএসআই কাইয়ুম চাঁদাবাজিতে লিপ্ত

সোনালী সিলেট ডেস্ক ::: রেকারের ভয় দেখিয়ে সিএনজি অটোরিক্সা আটকিয়ে চাঁদা আদায় ও হুমকির অভিযোগে টিএসআই কাইয়ুমের বিরুদ্ধে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার বরাবর লিখিত অভিযোগ প্রদান করেছেন এক ভোক্তভোগি। সিলেট নগরির মধুশহীদ ১২৯ নং বাসার মো. আবুল কাসেমের ছেলে মো. ইসমাইল হোসেন গত ১০ ফেব্রুয়ারী পুলিশ কমিশনার বরাবর লিখিত অভিযোগ প্রদান করলেও টিএসআই কাইয়ুমের বিরুদ্ধে আজ পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা গ্রহন না করায় উল্টো নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন দরখাস্তকারী ইসমাইল হোসেন। লিখিত অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন, গত ৬ ফেব্রুয়ারী তার সিলেট- থ -১১-৭৩৪৩ নং সিএনজি অটোরিক্সাটির চালক ওসমানী মেডিকেল স্ট্যান্ড থেকে যাত্রী নিয়ে তালতলা আসার পথে টিএসআই কাইয়ুম গাড়ির কাগজপত্র ঠিক আছে কিনা জানতে চেয়ে গাড়িটি আটক করেন। গাড়ির কাগজপত্র সব ঠিক থাকলেও টিএসআই কাইয়ুম বলেন, গাড়ি ছাড়তে হলে ৫০০ টাকা লাগবে। নইলে রেকার হবে। গাড়ির চালক নিরুপায় হয়ে গাড়ির মালিক ইসমাইল হোসেনকে বিষয়টি মুঠোফোনে অবগত করলে ইসমাইল হোসেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে গাড়িটি ছেড়ে দেওয়ার আবেদন জানান। তখন টিএসআই কাইয়ুম হুমকি দিয়ে বলেন, টাকা দিলে গাড়ি ছাড়া হবে, নইলে না। কারণ রেংঙ্কটি (পদবী) লাগাতে পুলিশ কমিশনার স্যারকে অনেক টাকা দেওয়া লাগছে, আরো অনেকে টাকা নিছে। টিএসআই কাইয়ুমের কাছে পূনরায় ইসমাইল হোসেন মিনতি করলে তিনি আরো ক্ষেপে যান। পরে ৪০০ টাকা নিয়ে তিনি গাড়িটি ছেড়ে দিয়ে বলেন, এ কথা কাউকে বললে অন্য বিভিন্ন মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকি প্রদান করেন টিএসআই কাইয়ুম। এ ব্যাপারে ট্রাফিক বিভাগের ডিসি ফয়সল মাহমুদের মুঠো ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

তথ্য সূত্র : দৈনিক সিলেটের দিনকাল

  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম