ঘুরে গেছে দৃশ্যপট : মোমেনের পাশে ভিড়, কেউ নেই মুহিতের সাথে

প্রকাশিত: ৪:৫৮ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৯, ২০১৯

ঘুরে গেছে দৃশ্যপট : মোমেনের পাশে ভিড়, কেউ নেই মুহিতের সাথে

সোনালী সিলেট ডেস্ক ::: ছিলেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রভাবশালী মন্ত্রী।  সিলেটের নেতাকর্মীরা তাকে বলতেন তাদের অভিভাবক।  তিনি আবুল মাল আবদুল মুহিত। সিলেট এলেই তাকে বরণ করতে বিমানবন্দরে ছুটে যেতেন নেতাকর্মীরা। আশপাশে সবসময়ই দলীয় নেতাকর্মীসহ আরও অনেকের ভিড় থাকতো।

অপরদিকে, মুহিতের ভাই ড. একে আব্দুল মোমেন ছিলেন সিলেট আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের অনেকটা চক্ষুশূল। ‘উড়ে এসে জুড়ে বসা’ মোমেনকে সহ্য করতে পারতেন না তাঁরা। ফলে বেশিরভাগ সময়ই মোমেন ঘুরে বেড়াতেন একা। নেতাকর্মীদের প্রায় কাউকে তাঁর পাশে মিলতো না।

অথচ আচমকা ঘুরে গেছে দৃশ্যপট। এখন মোমেনকে ঘিরেই নেতাকর্মীদের ভিড়। সেলফি তোলার হিড়িক। আর মুহিত হয়ে পড়েছেন একা। শুক্রবার ১০ বছর পর নতুন এই পরিস্থিতির মুখে পড়তে হয় মুহিতকে।

মুহিত মন্ত্রিত্ব ছেড়েছেন এ মাসে। রাজনীতি থেকেও অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন। মন্ত্রিত্ব ছাড়ার পর শুক্রবার প্রথম সিলেট আসেন মুহিত। আগে মুহিতকে বরণ করতে বিমানবন্দরে যেখানে নেতাকর্মীদের প্রতিযোগিতা শুরু হতো, সেখানে শুক্রবার মুহিত সিলেট আসলে বিমানবন্দরে ছিলেন না দলের নেতাকর্মীদের প্রায় কেউই। বিমানবন্দর এলাকা নীরব।

অপরদিকে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী হওয়ার পর ১৫ জানুয়ারি প্রথম সিলেট আসেন। আগে যে মোমেনকে এড়িয়ে চলতেন সিলেটের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা, সেই মোমেনকে বরণ করতেই এদিন বিমানবন্দরে দলটির নেতাকর্মীরা ভিড় জমান। এই সফরে মোমেনের সকল অনুষ্ঠানেই দলীয় নেতাকর্মীদের সরব উপস্থিতি দেখা গেছে।

শুক্রবার (১৮ জানুয়ারি) দুপুর ১ টা ৫০ মিনিটে নভোএয়ারের একটি ফ্লাইটে সিলেটে আসেন আওয়ামী লীগ সরকারের সাবেক দুই বারের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। মূলত সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চলমান বিপিএলের খেলা দেখতেই সিলেট আসা প্রবীণ এই রাজনীতিকের।

তবে আওয়ামী লীগের সিলেটের নেতাকর্মীরা বলছেন, মুহিতের সিলেটে আসার খবর জানতেন না তাঁরা। সাবেক এ অর্থমন্ত্রী কাউকে না জানিয়েই সিলেটে আসায় কেউ উপস্থিত থাকতে পারেননি বলে দাবি সিলেট আওয়ামী লীগের।

অর্থমন্ত্রী থাকাকালে মুহিত সিলেট আসলেই তাঁর পাশে সবসময় দেখা যেতো সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরীকে। এবার মুহিতের জন্য বিমানবন্দরে না যাওয়া প্রসঙ্গে শফিকুর রহমান সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোরকে বলেন, আবুল মাল আবদুল মুহিত সিলেট আসার খবর কেউ জানে না। তিনি যে সিলেটে আসছেন তা আমাদের জানা থাকলে অবশ্যই আমরা উপস্থিত থাকতাম। কারণ আবুল মাল আবদুল মুহিত হচ্ছেন সিলেটের অহংকার। তিনি কেবল সিলেটের না বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের এক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। তাকে ঘিরে আমাদের আগ্রহের কমতি নেই। তবে তিনি না জানিয়ে সিলেটে চলে আসায় আমরা উপস্থিত থাকতে পারিনি।

জেলা আওয়ামী লীগের এ সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, উনার ভাই পররাষ্ট্রমন্ত্রী যখন সিলেটে আসেন তখনও উপস্থিত ছিলাম। সাবেক এ অর্থমন্ত্রীর আগমনে অবশ্যই উপস্থিত থাকতাম। কিন্তু না জানায় থাকা হয়নি।

উনি আসার পর রাতে বাসায় সাবেক এ অর্থমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাত করেছেন কি না এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, আমি এখন ঢাকা যাওয়ার পথে। তাই উনার সাথে দেখা হয়নি।

এদিকে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন বলেন, সাবেক অর্থমন্ত্রী মুহিত সিলেটের অহংকার। উনার আগমনে আগ্রহ নেই এটা ভুল। তবে উনি কাউকে জানিয়ে আসেননি। উনি একাই এসে সরাসরি সিলেট স্টেডিয়ামে খেলা দেখতে গেছেন। দলের মহাসমাবেশের কারণে বর্তমানে তিনি ঢাকায় অবস্থান করছেন বলে জানান মহানগর আওয়ামী লীগের এ সাধারণ সম্পাদক।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • 20
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    20
    Shares
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম