বঙ্গবন্ধুর উদ্দীপ্ত ঘোষণায় আসে স্বাধীনতার দিক-নির্দেশনা : ড. রাগীব আলী

প্রকাশিত: ৪:৩৭ অপরাহ্ণ, মার্চ ৭, ২০২১

বঙ্গবন্ধুর উদ্দীপ্ত ঘোষণায় আসে স্বাধীনতার দিক-নির্দেশনা : ড. রাগীব আলী

ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ দিবস উদযাপন করেছে সিলেটে প্রথম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় লিডিং ইউনিভার্সিটি। এ উপলক্ষে রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ে নির্মিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রদান করেন লিডিং ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ও বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান দানবীর ড. সৈয়দ রাগীব আলী এবং উপাচার্য প্রফেসর ড. কাজী আজিজুল মাওলা।

 

পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের দানবীর রাগীব আলী ভবন প্রাঙ্গণে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ দিবস উপলক্ষে আলোচনা সবা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. সৈয়দ রাগীব আলী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের উদ্দীপ্ত ঘোষণায় আসে স্বাধীনতার দিক-নির্দেশনা। এই ঐতিহাসিক ভাষণটি ওই সময়ে সমগ্র বাঙালি জাতিকে স্বাধীনতা সংগ্রামে উজ্জীবিত করেছিল, শক্তি যুগিয়েছিল পাক হানাদারদের কবল থেকে দেশকে মুক্ত করার। বঙ্গবন্ধুর এই ঐতিহাসিক ভাষণই প্রেরণা যুগিয়েছে বাংলাদেশকে বিশ্বের কাছে পরিচিত করার এবং উন্নতির পথে এগিয়ে নেয়ার। লিডিং ইউনিভার্সিটিতে প্রতিবছর এ দিবসটি যথাযথ মর্যাদায় পালন করে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে অর্জন করতে হবে এবং বাস্তবায়ন করতে হবে। তিনি আরও বলেন, দেশকে এগিয়ে নিতে হলে মানব সম্পদ তৈরি করতে হবে এবং এ বিষয়ে আমাদের শিক্ষকদের ভূমিকা অনেক।

 

 

হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে উপাচার্য ড. কাজী আজিজুল মাওলা বলেন, দেশ এবং জাতির উন্নয়নের দিকনির্দেশনা ছিল বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষনে।এ ভাষন সম্পর্কে গবেষণা করতে এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শ সম্পর্কে আগামী প্রজন্মকে শিক্ষিত করতে হবে। গড়ে তুলতে হবে সঠিক নেতৃত্ব। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণ বাঙালি জাতিকে এগিয়ে নিয়ে যায় মুক্তির লক্ষ্যে। ঐতিহাসিক এ ভাষণটি ইউনেস্কোর ‘ইন্টারন্যাশনাল মেমোরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড রেজিস্টার’ এ অন্তর্ভুক্তির মাধ্যমে ‘বিশ্বপ্রামাণ্য ঐতিহ্যের’ স্বীকৃতি লাভ করেছে, এটা আমাদের গর্বের বিষয়। ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ আগামী নেতৃত্ব ও বর্তমান তরুণ প্রজন্মকে সঠিকভাবে দেশ ও জাতির উন্নয়নে কাজ করার অনুপ্রেরণা দিবে বলেও উল্লেখ করেতিনিন।

 

লিডিং ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রভাষক কাজি জাহিদ হাসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য সৈয়দ আব্দুল হাই, ট্রেজারার বনমালী ভৌমিক, কলা ও আধুনিক ভাষা অনুষদের ডিন প্রফেসর নাসির উদ্দিন আহমেদ, এবং ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন ড. বশির আহমেদ ভূঁইয়া।

 

অনুষ্ঠানে লিডিং ইউনিভার্সিটির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ড. মোস্তাক আহমেদ দীন, রেজিস্ট্রার মেজর (অব) মো. শাহ আলম পিএসসি এবং প্রক্টর মো. রাশেদুল ইসলামসহ বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •