রোগী ভর্তি করতে এসে সড়কেই ঝরল প্রাণ

প্রকাশিত: ১১:৩৭ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩০, ২০২০

রোগী ভর্তি করতে এসে সড়কেই ঝরল প্রাণ

সোনালী সিলেট ডেস্ক
সুনাম মিয়া (২৪)। পেশায় গাড়ি চালক। বুধবার মধ্য রাতে পরিচত জনের ডাকে ঘুম ভাঙে। মাহির আহমদ (১০)কে হাসপাতালে ভর্তি করতে তার গাড়ি নিয়ে হাসপাতালে যেতে হবে। মানবিক বিবেচনায় বিছানা ছেড়ে ওঠে গাড়ি নিয়ে বের হন। মাহির ও তার বড় ভাই রাহিন আহমদ(১২)কে নিয়ে সিলেট শহরের উদ্দেশে গাড়ি ছাড়েন। সাথে ছিলেন রাজন (২২) নামের আরও একজন।

 

এদের মধ্যে রাহিন ও মাহিন বাহার উদ্দিনের ছেলে, গাড়ি চালক সুনাম হাজী আব্দুল জলিলের ছেলে ও রাজন মৃত কুনু মিয়ার ছেলে। তারা সকলেই বিয়ানীবাজার উপজেলার চারখাই কসকট খাঁ বারইগ্রামের।

 

মাহিরকে হাসপাতালে ভর্তি করে বাড়ি ফেরার পথে কদমতলী থেকে আরও তিন যাত্রীকে গাড়িতে উঠানো হয়। মোট ছয়নের যাত্রা শুরু হয় চারখাইর উদ্দেশে। পথমধ্যে ভোর সাড়ে ৫টার দিকে গোলাপগঞ্জ উপজেলার হেতিমগঞ্জ পশ্চিম বাজারের মোল্লাগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় একটি সিমেন্ট বোঝাই ট্রাক (ঢাকা মেট্রো ট-২২৫২৪৭ ) কে চারখাইগামী একটি নোহা গাড়ি পেছন দিক থেকে ধাক্কা দিলে নোহা গাড়িটি ধুমড়ে মুচড়ে যায়। এসময় গাড়িতে থাকা চালক সুনাম ও স্বজন রাজন এবং আরও এক যাত্রী ঘটনাস্থলেই নিহত হন। অপর তিন যাত্রী কোনো রকম চেষ্টা করে বাইরে বেরিয়ে আসলে প্রাণে রক্ষা পান। পরক্ষণেই বিকট শব্দে নোহা গাড়ির সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়ে দুইটি গাড়িতেই আগুন লেগে যায়। নোহা গাড়ি ও গাড়ির ভেতরে থাকা নিহত রাজনরা ভস্মিভ‚ হন।

 

এ ঘটনায় রাহিন ও অপর দুই যাত্রী আহত হয়েছেন। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে প্রেরণ করেন। তবে, রাহিন বর্তমানে গোলাপগঞ্জে তার আত্মীয়ের বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছে বলে জানা গেছে। রাহিন মাথায় আঘাত পেয়েছে এবং বৃহস্পতিবার সবগুলো টেস্ট করার পর তার অবস্থা সম্পর্কে জানা যাবে বলে তার পরিবার নিশ্চিত করে।

 

উল্লেখ্য,বুধবার ভোর সাড়ে ৫টায় ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে থাকা একটি সিমেন্ট বোঝাই ট্রাক (ঢাকা মেট্রো ট-২২৫২৪৭ ) কে চারখাইগামী একটি নোহা গাড়ি পেছন দিক থেকে ধাক্কা দিলে গাড়িটি ধুমড়ে মুচড়ে যায়। এসময় গাড়িতে থাকা তিন যাত্রী ঘটনাস্থলেই নিহত হন। অপর তিন যাত্রী কোনো রকম চেষ্টা করে বাইরে বেরিয়ে আসলে প্রাণে রক্ষা পান। পরক্ষণেই বিকট শব্দে নোহা গাড়ির সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়ে দুইটি গাড়িতেই আগুন লেগে যায়। নোহা গাড়ি ও গাড়ির ভেতরে থাকা নিহত যাত্রীরা ভস্মিভ‚ হন।

 

নিহত যাত্রীরা হলেন- বিয়ানীবাজার উপজেলার চারখাই কসকট খাঁ বারইগ্রামের হাজী আব্দুল জলিলের ছেলে সুনাম মিয়া (২৪) ও একই এলাকার মৃত কুনু মিয়ার ছেলে রাজন (২২)। বাকি একজনের পরিচয় জানা যায়নি।

 

পরে বিকেল সাড়ে ৩টায় এদিকে বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে ঘটনাস্থলে পৌছে ক্রাইম সিন ইউনিট (সিআইডি)। তারা স্থানটি রেডমার্ক চিহ্নিত করে ভস্মীভ‚ত নোহা ও ট্রাক উদ্ধার করে তা জব্দ করেন।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •