কমলগঞ্জে গ্রামবাসীর উদ্যোগে ও স্বেচ্ছাশ্রমে ২ কিলোমিটার রাস্তা সংস্কার

প্রকাশিত: ৬:৫২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০২০

কমলগঞ্জে গ্রামবাসীর উদ্যোগে ও স্বেচ্ছাশ্রমে ২ কিলোমিটার রাস্তা সংস্কার

মৌলভীবাজার সংবাদদাতা
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে শুকুর উল্লা গ্রামের বাসিন্দাদের উদ্যোগে ও স্বেচ্ছাশ্রমে প্রায় ২ কিলোমিটার রাস্তার সংস্কার কাজ সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার (১৪ নভেম্বর) তারা এ রাস্তা সংস্কারের মাধ্যমে সমাজসেবায় উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন।

 

জানা যায়, কমলগঞ্জ উপজেলার আদমপুর ও মাধবপুর ইউনিয়নের মধ্যে সংযোগ রক্ষাকারী জনগুরুত্বপূর্ণ সড়ক হচ্ছে ঘোড়ামারা-শুকুর উল্লাহগাঁও সড়ক। এ সড়ক দিয়ে হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করেন।

 

সড়কে ধলাই নদীর উপর চার বছর আগে প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যায়ে ৯৬ মিটার আরসিসি পিএসসি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণ করা হয়। ব্রিজ নির্মাণ হলেও প্রায় ৪ বছর ধরে আলোরমূখ দেখেনি দুই ইউনিয়নের সংযোগকারী কাঁচা রাস্তাটি।

 

ফলে গ্রামীণ কাঁচা সড়কটিতে কোন ধরনের উন্নয়নমূলক কাজ না হওয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন সড়কে যাতায়াতকারী ২ ইউনিয়নের লোকজনসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষজন।

 

স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, এলাকার লক্ষাধিক কৃষক তাদের কৃষিপণ্য নিয়ে বর্ষাকালে যাতায়াত করতে চরম বিপাকে পড়েন। স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসাগামী শিক্ষার্থীরাও এতোদিন এই রাস্তায় দুর্ভোগ নিয়ে যাতায়াত করছে।

 

স্থানীয় জয়নাল মিয়া বলেন, ২ কিলোমিটার রাস্তা দীর্ঘদিন ধরে সংস্কারের অভাবে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছিল। দীর্ঘদিন ধরে সরকারিভাবে রাস্তাটির কোন উন্নয়ন কাজ করা হয়নি। তাই রাস্তাটিতে স্বাভাবিক চলাচল অব্যাহত রাখতে মেরামতের উদ্যোগ নিয়েছি। ওই রাস্তাটি দিয়ে এখানকার ১০টি গ্রামের মানুষ নিত্যদিন চলাচল করে। তাদের দুর্ভোগ দেখে সম্পূর্ণ মানবিক দিক বিবেচনা করে আমরা রাস্তাটি একটু সচল করেছি। এই রাস্তাটি জরুরি ভিত্তিতে পাকাকরণ প্রয়োজন।

 

স্থানীয় ইউপি সদস্য বাবুল কুমার সিংহ জানান, মৌলভীবাজার এলজিইডিকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। এলজিইডি অফিসের লোকজন এসে রাস্তাটি ৩ বার মেপে নিয়ে যায় কিন্তু গত ৪ বছরে ও কোনো উন্নয়নমূলক কাজ হচ্ছে না।

 

মাধবপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পুষ্প কমার কানু বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন রাস্তা ও শুকুর উল্লার গ্রামের রাস্তা পাকাকরণের জন্য আবেদন করেছি ৷ তবে শুকুর উল্লার গ্রামের রাস্তা বড় ধরনের যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এ রাস্তাটি পাকাকরণ ও সংস্কারে বরাদ্দ না থাকায় সরকারিভাবেও সংস্কার করা সম্ভব হচ্ছে না।

 

কমলগঞ্জ উপজেলা উপ প্রকৌশলী মামুন ভূইয়া বলেন, আদমপুর ও মাধবপুর ইউনিয়নের মধ্যে সংযোগ রক্ষাকারী জনগুরুত্বপূর্ন সড়ক হচ্ছে ঘোড়ামারা-শুকুর উল্লাহগাঁও সড়ক। এ সড়কটিসহ উপজেলার অন্যান্য রাস্তাঘাটের তালিকা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু এখনও পর্যাপ্ত বরাদ্দ পাওয়া যায়নি। বরাদ্দ আসলে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সড়কটির কাজ করা হবে।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম