জামায়াতকে নির্বাচন প্রক্রিয়ার হুমকি বলছেন মার্কিন কংগ্রেসম্যান

প্রকাশিত: ১১:৪৭ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৮

জামায়াতকে নির্বাচন প্রক্রিয়ার হুমকি বলছেন মার্কিন কংগ্রেসম্যান

সোনালী সিলেট ডেস্ক ::: জামায়াতে ইসলামিকে বাংলাদেশের জাতীয় নির্বাচনের জন্য হুমকি বলে মন্তব্য করেছেন প্রভাবশালী মার্কিন কংগ্রেসম্যান জিম ব্যাংকস।

তিনি বলেন, আমরা বাংলাদেশে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরাপদ নির্বাচনের আশাবাদী। আর জামায়াতে ইসলামির মতো গ্রুপ এই গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় হুমকি।

সম্প্রতি ওয়াশিংটনে ‘স্ট্যাবিলিটি, ডেমোক্রেসি অ্যান্ড ইসলামিজম’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

বাংলাদেশ এখন উন্নয়নশীল গণতান্ত্রিক দেশ বলে উল্লেখ করে জামায়াতে ইসলামির মতো দলগুলো এই উন্নয়নের জন্য হুমকি হিসেবে মন্তব্য করেন জিম ব্যাংকস।

মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র খুবই ইতিবাচক জানান তিনি।

তিনি বলেন, সারা বিশ্ব বাংলাদেশের আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দিকে তাকিয়ে আছে। যুক্তরাষ্ট্র চায় এখানে একটি অবাধ, নিরপেক্ষ ও গণতান্ত্রিক নির্বাচন এবং সবার ধর্মীয় স্বাধীনতা নিশ্চিত হোক।

আলোচনা সভায় দুইজন রাজনৈতিক কর্মীর নিহত হবার ঘটনা উল্লেখ করে জিম ব্যাংকস আগামী ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনকে সামনে রেখে সহিংসতা আরও বৃদ্ধি পেতে পারে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

এসময় তিনি জানান, বাংলাদেশে যেন উগ্রবাদী গোষ্ঠী সংশ্লিষ্ট কোনো সংগঠনকে সহায়তা করা না হয় সে ইউএসএআইডি ও মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরকে সে বিষয়ে সর্তক কর হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশে গণতন্ত্রের যাত্রা এখনো পরিপক্ক হয়নি। গণতন্ত্রের এই যাত্রাকে এখানেই গলা টিপে ধরতে চায় জামায়াত। এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র চরমপন্থা দল হিসেবে জামায়াতকে চিহ্নিত করেছে এবং তাদেরকে কোনো ধরনের সহায়তা না করার জন্য বিশ্বব্যাপী বার্তা দিয়েছে।’

লিবার্টি সাউথ এশিয়ার প্রতিষ্ঠাতা সেথ ওল্ডমিক্সন বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র সরকারের আনুকূল্য পেতে জামায়াত পরামর্শক প্রতিষ্ঠান নিয়োগ করেছে। জামায়াতের পরামর্শক প্রতিষ্ঠান নিয়োগ দেয়ার কারণ হচ্ছে যে তারা ইচ্ছমতো সহিংসতা চালিয়ে যাবে কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র সরকার তাদের কিছু বলবে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘জামায়াত মূলত কোনো রাজনৈতিক দল নয়। বিগত ১৯৪১ ভারতে জন্ম নেওয়া জামায়াত বাংলাদেশেরও কোনো দল নয়। জামায়াতের সঙ্গে পাকিস্তানের প্রত্যক্ষ যোগাযোগ রয়েছে। বাংলাদেশ জন্মের সময় জামায়াত ঘোর বিরোধী অবস্থানে থেকে প্রত্যক্ষভাবে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে কাজ করেছে। অথচ এই জামায়াত বাংলাদেশের রাজনীতিতে এখনো প্রভাব বিস্তার করে।’

সেথ ওল্ডমিক্সন বলেন, ‘অতি সম্প্রতি বাংলাদেশের রাজনীতিতে বড় ধরনের পরিবর্তন দেখা গেছে। অভিজ্ঞ এবং ধর্মনিরপেক্ষ রাজনীতিবিদ কামাল হোসেন বিএনপি’র সঙ্গে ঐক্য জোট গড়েছেন, যিনি এক সময়ে আওয়ামী লীগের মন্ত্রী ছিলেন। কামাল হোসেন বিএনপির সঙ্গে ঐক্য গড়ার সময় শর্ত দিয়েছিলেন যে জামায়াতকে সঙ্গে নেওয়া যাবে না। কিন্তু তার শর্ত এক সপ্তাহও টেকেনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আগামী নির্বাচনে বিএনপির সঙ্গে জোটে গিয়ে কামাল হোসেনের দল পেয়েছে ১৭ বা ১৯টি আসন। অথচ জামায়াত পেয়েছে ২৫টি আসন। জামায়াত এখনো বাংলাদেশের রাজনীতির অনেকাংশ নিয়ন্ত্রণ করছে, যা ভয়ঙ্কর।’

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
4Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    4
    Shares
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম