স্বচিত্র প্রতিবেদন
হাওরপারের দ্বীনি প্রতিষ্ঠানের আকুতি

প্রকাশিত: ৯:২৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৫, ২০২০

<span style='color:#C90D0D;font-size:19px;'>স্বচিত্র প্রতিবেদন</span> <br/> হাওরপারের দ্বীনি প্রতিষ্ঠানের আকুতি

মো. মঈন উদ্দিন মিলন
কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ পূর্ব সীমান্তে নদী নালা খাল বিল বেষ্ঠিত হাওরপারের ছোট ছোট পাড়া লুমবিল, পিঁপড়াখাই, কান্দিপাড়া, চা মারা গ্রাম। ৪/৫ কিলোমিটার জুড়ে নিচু বুরোজমি আর হাওর বিলে ঘেরা! নেই কোন রাস্তাঘাঠ। যোগাযোগের একমাত্র সম্বল বর্ষায় নৌকা শুকনোতে পায়েহাটা। এমনটি চলে আসছে সুদীর্ঘ তিনযুগ ধরে। হাতেখড়ি মাছধরা আর বুরোচাষ এদুইয়ে-ই তাদের জীবন-জীবিকা।

 

মুসলিম অধ্যূষিত অঞ্চলটিতে চোখে পড়লো ছোট্ট একটি মসজিদ, রেওয়াজ অনুযায়ী ওয়াজনসীহতের আসর বসে শুকনো মৌসুমে। স্বচিত্র প্রতিবেদন তৈরিতে দারুসসুন্নাহ লুমবিল মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা মুহতামিম আলহাজ্ব হযরত মাওলানা আশিকুর রহমান কোম্পানীগঞ্জী, এলাকার সরলমনা জৈনুদ্দীন জইনু, আমির উদ্দিন, নাম না জানা কিছু যুবকদের কাছ থেকে জানা যায় ২০১৭ সালের প্রথমদিকে মহল্লার মসজিদ কতৃক ওয়াজ মাহফিলে বর্তমান মুহতামিম হাওরাঞ্চলের অজপাড়াগাঁয় দ্বীনিশিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠার উপর গুরুত্বারোপ করেন। পরক্ষণেই এলাকার যুবক, মুরব্বি উদ্বুদ্ধ হয়ে উঠেন। ঘটনাক্রমে উলামায়ে দেওবন্দের অনুসারী তৎকালীন ও বর্তমান হরিপুর বাজার মাদ্রাসার শিক্ষাসচিব, তোয়াকুল মাদ্রাসার বর্তমান শায়খুল হাদীস হযরত মাওলানা মুফতী নজরুল ইসলামের পরামর্শেই মূলত মাদ্রাসার যাত্রা শুরু।

 

 

তাছাড়া লাকী গ্রামের নূর হোসেন মোল্লা, তোয়াকুল মাদ্রাসার মুহতামিমসহ মাদ্রাসাপ্রতিষ্ঠায় উল্লেখযোগ্য সহযোগিতা ভূলার নয়। লাকী নিবাসী মুরব্বি নেসার আলী ও পিঁপড়াখাই গ্রামবাসীর যৌথভূমিদান, বালুচর গ্রামের তরুণ ব্যবসায়ী নাজিম আহমেদ এর মাটি ভরাটে লক্ষাধিক টাকার অনুদান, দক্ষিণ রণিখাই ইউনিয়ন পরিষদের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ইকবাল হোসেন ইমাদ আহমদের পর্যাপ্ত ইট অনুদানে মাদ্রাসাটির অবকাঠামো উন্নয়ন অগ্রগতির পথে৷ অসমাপ্ত কাজের দূরাবস্থা দূরীকরণে আজ পরিদর্শনকালে সিলেটশহরের তাবলীগজামাতের দুইসাথী ৫০+১০=৬০ হাজার টাকার টিন ও অ্যাঙ্গেল বাবদ অনুদানে গোটা এলাকাবাসী আশ্বান্বিত হন মাদ্রাসার গতানুগতিক উন্নয়নে। ধারাবাহিক অবকাঠামো নির্মাণকাজে আর্থিক অনুদানের হাত বাড়িয়ে দেয়ার জন্য বিত্তশালী ও ধনাঢ্য ব্যবসায়ীদের কাছে মিনতি হাওরপারের জনসাধারণের।

 

বছরতিনেক হতে মাদ্রাসাটি চলমানে এ যাবৎ প্রায় ২০০ ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি, শিক্ষক সংখ্যা ৫, শ্রেণী সংখ্যা চতুর্থ। পাশাপাশি অজোপাড়াগায়ে শিশুকিশোরদের সুপ্ত প্রতিভার বিস্ফোরণ ঘঠিয়েছেন উপজেলা ভিত্তিক মেধা বৃত্তি অর্জনে।

 

সবিশেষ সহজসরল খেটেখাওয়া হাওরাঞ্চলের দ্বীপের মতো কয়েকটি পাড়ায় নেই কোন স্কুল মক্তব। এমতাবস্থায় দ্বীনিশিক্ষার এ মাদ্রাসাটি টিকিয়ে রাখা জরুরী বলে মনে করছেন এলাকাবাসী।

 

আল্লাহর জমিনে আল্লাহর দ্বীন প্রতিষ্ঠা নবীজী সা. এর রক্তমাখা দ্বীন ইসলামের আলো ছড়িয়ে দিতে সিলেটসহ কোম্পানীগঞ্জের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আকুতি জানান এলাকাবাসী।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম