শামীম হত্যাকাণ্ড
আসামিদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

প্রকাশিত: ৯:২০ অপরাহ্ণ, জুন ১৫, ২০২০

<span style='color:#C90D0D;font-size:19px;'>শামীম হত্যাকাণ্ড</span> <br/> আসামিদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

ফাইল ছবি : র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার আসামি রুহুল আমীন ও তার স্ত্রী মৌসুমী বেগম


সোনালী সিলেট ডেস্ক
সিলেটে আইনজীবী সহকারী ইউনুছ আহমদ শামীম হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করেছে দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশ। একই সাথে গ্রেপ্তারকৃত দুই আসামী হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত মর্মে তথ্যাদি প্রদান করে এবং আদালতে নিজেদের দোষ স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

 

গ্রেপ্তার আসামিদের রবিবার (১৪ জুন) আদালতে প্রেরণ করলে তারা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিসহ ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ এবং ঘটনায় জড়িত অন্য আসামীর তথ্য প্রদান করে। পরে বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশক্রমে তাদেরকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়।

 

পুলিশ জানায়- গত ১০ জুন দক্ষিণ সুরমা থানাধীন উত্তর সিলাম (ধোপাঘাট) এলাকায় একটি বস্তাবন্দি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। ওইদিন রাতে মৃতের আত্মীয়স্বজন তাকে আইনজীবী সহকারী ইউনুছ আহমদ শামীম বলে শনাক্ত করেন।

 

এ ঘটনায় ১১ জুন মৃতের ছোট ভাই বাদী হয়ে দক্ষিণ সুরমা থানায় অজ্ঞাতনামা আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করলে এর দুদিন পর ১৩ জুন ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে দুজনকে আটক করে পুলিশ। আটক দুজন হলো- মোগলাবাজার থানাধীন শ্রীরামপুর দক্ষিণপাড়া গ্রামের সামছুল মিয়ার ছেলে রুহুল আমীন (৩৪) ও তার স্ত্রী মৌসুমী বেগম (২৩)।

 

ঘটনার মূল রহস্য উদঘাটনের জন্য দক্ষিণ সুরমা থানার সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. ইসমাইল পিপিএম, অফিসার ইনচার্জ খায়রুল ফজল, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মোখলেছুর রহমানসহ তদন্তকারী কর্মকর্তারা আসামীদ্বয়কে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করলে একপর্যায়ে আসামীরা হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত মর্মে তথ্যাদি প্রদান করে। তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ব্যবহৃত একটি জিআই পাইপ ও মৃতদেহ বহনকারী একটি প্রোভোক্স গাড়ী (যার রেজি নং-ঢাকা মেট্রো-খ-১২-৬৬৬৭) বিয়ানীবাজার থানা এলাকা থেকে জব্দ করা হয়।

 

ঘটনায় জড়িত অপর আসামীকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানিয়েছেন দক্ষিণ সুরমার থানার অফিসার ইনচার্জ খায়রুল ফজল।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •