ওসমানী থেকে করোনায় আক্রান্ত প্রসূতি পলাতক

প্রকাশিত: ১:০৮ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ২৪, ২০২০

ওসমানী থেকে করোনায় আক্রান্ত প্রসূতি পলাতক

সোনালী সিলেট ডেস্ক
সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনী ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আরেকজন প্রসূতি নারী করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন।

 

বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) ওসমানী মেডিকেল কলেজের ল্যাবে পরীক্ষায় তার করোনা পজেটিভ ধরা পড়ে।

 

তবে নমুনা সংগ্রহের পরপরই ওই রোগী হাসপাতাল থেকে পালিয়ে গেছেন বলে জানা গেছে। তার বাড়ি সিলেট জেলায় বলেও জানিয়েছে ওসমানী হাসপাতালের একটি সূত্র।

 

এরআগে গত ১৩ এপ্রিল ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সুনামগঞ্জের এক প্রসূতি নারী করোনাভাইরাস আক্রান্ত হন। এরপর হাসপাতালের ১৯ চিকিৎসকসহ ৪৪ স্বাস্থ্যকর্মীকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়। এবার একই হাসপাতালের একই ওয়ার্ডের আরেকজন প্রসূতি করোনা আক্রান্ত হলেন। এতে করে সিলেট বিভাগের প্রধানতম এই হাসপাতালের গাইনী ওয়ার্ডের চিকিৎসা ব্যাহত হওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

 

ওসমানী হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, ওসমানীর গাইনী ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন সিলেটের এক প্রসূতির নমুনা গত মঙ্গলবার সংগ্রহ করা হয়। বৃহস্পতিবার পরীক্ষায় তার করোনা পজেটিভ ধরা পড়ে। এদিন নমনা সংগ্রহের পরই হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যান ওই নারী। তার সন্ধান চলছে বলে হাসপাতালের একটি সূত্র জানিয়েছে।

 

বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষায় ১৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়। সিলেটে এ পর্যন্ত এটিই সর্বোচ্চ র্ংখ্যক শনাক্তের সংখ্যা।

 

সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক হিমাংশু লাল রায় বলেন, বৃহস্পতিবার ওসমানী মেডিকেলের করোনা পরীক্ষাগারে ১৮৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ১৬ জনের করোনা পজেটিভ আসে। এনিয়ে সিলেট বিভাগে মোট ৪৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত হলেন। এরমধ্যে এক চিকিৎসকসহ দুজন মারা গেছেন।

 

বৃহস্পতিবার শনাক্ত হওয়া ১৬ জনের মধ্যে সিলেটে জেলার ৫ জন, সুনামগঞ্জের ৮ জন ও হবিগঞ্জে ৩ জন রয়েছেন।

 

সিলেটে এক প্রসূতি নারী ছাড়া বৃহস্পতিবার শনাক্ত হওয়াদের মধ্যে দুজন শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন সেন্টারে চিকিৎসাধীন আছেন। তাদের একজনের বাড়ি সিলেট সদর ও অপরজনের বাড়ি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায়। বাকী দুজনের সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য এখনও পাওয়া যায়নি।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম