সারাদেশে এখন দুই নম্বরের জয়ধ্বনি চলছে : হাফিজ

প্রকাশিত: ৭:৫৪ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২০

সারাদেশে এখন দুই নম্বরের জয়ধ্বনি চলছে : হাফিজ

সোনালী সিলেট ডেস্ক
দুর্নীতি মামলার দণ্ড নিয়ে কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে রাজপথে কোনো প্রতিবাদী বার্তা দেখতে পাননি বলে আক্ষেপ ঝরেছে দলটির ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমেদের কণ্ঠে। তিনি বলেছেন, প্রিয় নেত্রী দুই বছরের বেশি সময় ধরে কারাগারে বন্দি। আর আমরা চুপচাপ বসে আছি।

 

খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে শনিবার ঢাকার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধনে বিএনপি নেতা একথা বলেন। ‘জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্ম’ ব্যানারে মানববন্ধনটির আয়োজন করা হয়।

 

সারাদেশে এখন দুই নম্বরের জয়ধ্বনি চলছে মন্তব্য করে হাফিজ বলেন, ‘বিএনপি এখন কয় নম্বর দল হবে সেটা নিজেদের নির্ধারণ করতে হবে।’

 

সরকারকে স্বৈরাচার দাবি করে বিএনপি নেতা বলেন, ‘বাঙালি ব্রিটিশদের বিদায় করেছে, পাকিস্তানিদের বিদায় করেছে। আজকে চতুর্দিকে যে নীরবতা, শান্ত পরিস্থিতি; এ রকম থাকবে না। বাঙালি কোনও স্বৈরাচারকে সহ্য করেনি। স্বৈরাচারকে বিদায় করার সময় সমাগত।’

 

‘দেশের জনগণকে আমরা বলবো, আপনারা রাজনৈতিক দলের দিকে তাকিয়ে থাকবেন না। গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা এবং আইনের শাসন কায়েম করা প্রত্যেক নাগরিকের কর্তব্য।’

 

বাংলাদেশ ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে আছে মন্তব্য করে হাফিজ বলেন, ‘কিছুদিন আগে ঢাকা শহরে ভোট ডাকাতি হয়ে গেলো। এখানে এত লোক, কেউ ভোট দিতে পারেননি। সাধারণ জনগণ ভোটকেন্দ্রে যাননি। অর্থনীতি বিপর্যস্ত। ব্যাংকগুলো লুটপাট হয়ে গেছে। সর্বশেষ লুটপাটের ভাগ নিয়েছে খোদ সরকার।’

 

‘অদূর ভবিষ্যতে সরকারি-বেসরকারি সব ব্যাংক দেউলিয়ার পথে এগিয়ে যাচ্ছে। কেন স্বাধীন দেশে এই অবস্থা হলো? এই ভাষার মাসে দাঁড়িয়ে আজ আমরা কি শুধু অশ্রু বিসর্জন করবো? গণতন্ত্র নেই বলে শুধু দুঃখপ্রকাশ করবো? নাগরিক হিসেবে আমাদের কি কিছুই করার নেই?’

 

বিএনপির এই ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, ‘আজ উচ্চপদস্থ ব্যক্তিরা কচুরিপানা খাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন। কচুরিপানায় নাকি প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন আছে। এদিকে আমরা প্রতিবেশী রাষ্ট্রের আধিপত্যের মুখে পড়েছি।’

 

দেশের সাধারণ মানুষই স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন উল্লেখ করে হাফিজ বলেন, ‘রাজনৈতিক দলগুলো যখন প্রধানমন্ত্রীত্বের স্বপ্নে বিভোর, সাধারণ মানুষ তখন সৈনিকদের নেতৃত্বে রাজপথে নেমেছিল। গ্রাম-গঞ্জে ছড়িয়ে পড়ে মুক্তিযুদ্ধের শুভসূচনা করেছিল এবং দেশকে স্বাধীন করেছিল।’

 

‘আবার সময় এসেছে, আরেকটি মুক্তিযুদ্ধ করার। এই মুক্তিযুদ্ধে জাতীয়তাবাদী শক্তি ও সাধারণ মানুষ অংশ নেবে।’

 

এসময় তিনি বিএনপি এবং অন্য সব বিরোধী রাজনৈতিক দলের সদস্যদের খালেদা জিয়ার মুক্তি ও গণতন্ত্রের মুক্তিতে নিজ নিজ উদ্যোগে রাজপথে নেমে আসার আহ্বান জানান।

মানববন্ধনে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্মের সভাপতি কালাম ফয়েজী, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, স্বনির্ভরবিষয়ক সম্পাদক শিরিন সুলতানা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
0Shares
সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম